একদল বেরোবিয়ানের কবিতা

মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৯ ৪:৪৪ অপরাহ্ণ
Share Button

সিঁদুর নয় রক্ত।। সঞ্জয় বিশ্বাস 

সত্য যুগের আগে কোনো পূর্বপুরুষ বেলপাতায় আশ্বিনের  মেঘ আঁকতে গিয়ে এঁকে ফেলেছিলো তোমার কপাল।
-সেই কপালের সিঁথি বেয়ে অনন্তকাল হেঁটে হেঁটে আমি জেনে গেছি,  সিঁদুরের নাম করে তুমি পরে আছো রক্ত,
জেনে গেছি,  অপবিত্র রক্ত পরেই মহাপবিত্র হয়ে আছো তুমি।



নিরুত্তর।। আলেয়া দেবী

মন উঠোনে হঠাৎ বৃষ্টি নামে,,,,
চোখের কোণে স্মৃতির ঘুম, অবুঝ সন্ধ্যায়।
মিছে মায়াবীর টানে— ছলনা পড়ে যাই,
মরিচিকা-বিবর্ণ প্রেম
অন্ধকারে ছুঁয়ে থাকা বিশ্বাসের মতোন।

বা’পাশের নিদান কাল, একলা ঘরে প্রহর গুনে
আয়ু বাড়ায় মায়ার ,প্রেমের, অভিনয়ের, তোমার।



 

শেষ দাবী।। শাওন মাহমুদ 

বেনামী প্রিয়ার কাছে আমার শেষ দাবী,
চিঠি দিও-
নীল কোনো খামে চিঠি দিও।
ঝিঁঝিঁডাকা কোনো অলস অবেলায় পোস্ট ম্যান এসে বলবে, আপনার চিঠি এসেছে।
চিঠি হাতে মুছে যাবে অবেলার রঙ,
চশমার ফ্রেম বন্দি চোখে ঠিকানা দেখে অবাক হবো বেশ।
তুমুল সাজিয়ে ছন্দ তুলে চিঠি লেখা
অথচ কোনো নাম ঠিকানা নেই!
আমি ধরেই নিব তোমাকে ঠিক।
এই ডিজিটাল যুগে ক’জন পায় এমন চিঠি!
মুঠোফোনের ব্যবহার কেড়েই নিয়েছে চিঠিতে লেখা প্রেমের কাব্য,
লেখা পৃষ্ঠার ভাঁজে ভাঁজে রাখা নিদর্শন দু একটি গোলাপের পাঁপড়ি।
সামান্য দাবী চিঠি দিও-
সাদা পৃষ্ঠায় জমিয়ে সমস্ত আবেগ, সমস্ত বিসুখ, সমস্ত ভালোবাসা পাঠিয়ে দিও;
অথবা সম্ভব না হলে এতকিছু দিও না –
সাদা পৃষ্ঠা ভরিয়ে দিও কালো রঙের দু’চারটে শব্দে।
যে শব্দগুলি আমায় বলবে একটি নারী, একটি বেনামি পত্র, দু’তিনটে শব্দে সাড়ে সাতচল্লিশ বছর একসাথে কাটানোর ইঙ্গিত আর আমাদের দুঃখ ভাগের নাব্যতা।
এসব শুনে আমার পুরোনো বোতামহীন শার্টে ময়লা লাগবে না বালিকা,
আমি আমার সব কর্ম একাই করতে পারি,
শুধু এমন করে চিঠি লেখার সময় নেই আমার।
পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা লিখতে যদি খুব কষ্ট হয়
তবে এক লাইনেই লিখো প্রিয়,
“তোমাকে ভালবাসি”।



ভালোবাসা যেখানে সার্বজনীন

                    – কমলাঞ্জন কেষ্টা

 

আমি ঝেঁটিয়ে বিদায় করেছি তোমাদের নাগরিক মনোমালিন্য, কিংবা লোক দেখানো মানুষের উপরে মানুষের সহস্র ভালোবাসার দেমাগ,
পাড়াগাঁ  হতে নিয়ে এসেছি নিপীড়িত, নির্যাতিত আটপৌড়ে বউ,ঘৃণার কুল- রক্ষীণী কালো কুমারী ও অকাল যৌবনে লালিত বিধবা, কঠিন লজ্জায় দিয়েছি কঠোর বাঁধ। পথ-প্রান্তর হতে নিয়ে এসেছি স্নেহ-ভালবাসাহীন নিষ্পাপ শিশু,লোকালয়ের  লাঞ্চিত,পীড়িত  মানব-জীবন আর ক্ষুধা তৃষ্ণায় ছটফট ভয়ংকর শরীরের দাতালো মানুষ।
এদেরকে নিয়ে এসে এক করেছি বিশ্বের কাতারে..
ভালোবাসা যেখানে সার্বজনীন।
তোমাদের ভালোবাসা যেখানে সার্বজনীন।

Share Button

আপনার মতামত দিন