শহুরে পোড়া প্রেম।। বিধান চন্দ্র বর্মণ

বৃহস্পতিবার, মে ১০, ২০১৮ ৫:২৩ অপরাহ্ণ
Share Button

পথের আড়ালে লুকিয়ে থাকে আমার থরথর প্রেম –
দূর্বাঘাসের মতন কলকলিয়ে বেড়ে উঠে আজ
দিনের পর দিন-
রাতের পর রাত অনবরত!

দুর্মরতা পায় আদিগন্ত হতে বেমালুম
মহাকাশ শূন্যতায়-
আমি তখন ডোবার পঁচা কাদায় বুদবুদ বায়বীয় গ্যাস হয়ে
স্টিলের ডেকচিতে ভরে,
এক টাকার সাদা বেলুন হয়ে উড়ি!
এখানে ওখানে –
খুঁজে মরি; মহাসাগরের উত্তাল ঊর্মির স্রোতে,
নীল আর্মস্ট্রং এর রকেট যানের দূর্বার গতিতে,
কিংবা অস্ট্রিস পাখির দুপায়ি ক্ষিপ্রতায়!

তবুও ধরা পাইনা আমি এ গোছালো শিহরণ!
এ প্রেম আজ ধরাশায়ী হয়ে পড়ে থাকে এ শহরের ব্যস্ত জ্যামে,
আটকে থাকে শতশত বিকট যন্ত্রযানের মতো;
ধূলোয় লুটোপুটি খায় ভাটায় পোড়া স্বচ্ছ ঝকঝকে ইটের গুড়োর মতোন!!
আমার এই থরথর প্রেম –
ময়লা ভ্যানগাড়ির থলে ভরে জমা হয় কোনো এক আবর্জনা স্তুপে;
বুড়ি গঙ্গা নদীর স্থির জলে-
এই পোড়া শহরের দুর্গন্ধ বাতাসে।

সন্ধ্যার ঝিঝি পোকার মতোন সাইরেন হয়ে
কানে উঠায় তোলপাড়;
এ শহরে রাত্রির নিস্তব্ধতায় আমার প্রেম চুপি চুপি আসে-
মোটরযানের দগ্ধ ধোয়ার চিমনীর ঘ্রাণে;
হঠাৎ আধমরা করে রাখে জোৎস্নার ধবল জলে।

একাকি বসে থাকা লক্ষ্মীপেচার মত ঘন রাতে-
আমাকে এ থরথর মানবীয় প্রেম –
বিশলক্ষার ছুরিতে নিহত করে!
এই পোড়া শহরে মদনদেবতার পঞ্চবাণে অবিরাম!!

Share Button