সাইয়েদা আক্তার কবিরানী এর একগুচ্ছ কবিতা

শনিবার, মে ১২, ২০১৮ ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ
Share Button

অন্তরীক্ষ তুমি

তোমার হৃদয়ে স্বচ্ছ জোতিষ্কালোকে
আমি আতশিকাচের মূর্তি,
তোমার হৃদয়ে ঝাঁঝালো রবিকিরণে
আমার রৌদ্রসেবনের ফুর্তি।

তোমার হৃদয়ে শুক্লপক্ষের কোজাগরী
দোদুল্যমান সরণ পূর্ণিমা,
তোমার হৃদয়ে অন্ধতমিস্র প্রকোষ্ঠের
আমি নিষ্প্রভ রাত্রিনামা!

তোমার হৃদয়ে ক্ষিতিরুহ পল্লবধারার
আমি নীরব সঞ্জাতমঞ্জরি,
তোমার হৃদয়ে বনমল্লিকা সরোজিনী
ক্রিসেনথিমাম কবিরানী!

তোমার হৃদয়ে আমি চন্দ্রকরোদ্ভাসিত
বাতান্দোলিত পূর্বাভাস,
তোমার হৃদয়ে হিমবাহের জগদ্বলিত
উষ্ণতা জড়ানো দীর্ঘশ্বাস!

তোমার হৃদয়ে শৈলশিখর উপলখন্ড
ছুঁয়ে আমি প্রবালপ্রাচীর,
তোমার হৃদয়ে আমি মৃগতৃষ্ণিকা হয়ে
সমতলক্ষেত্রের মত স্থির।

তোমার হৃদয়ে আমি কখনো মহদ্ধিম
কখনোবা হই বর্ষাবিঘাত,
তোমার হৃদয়ে আমি জলস্ফিতী বর্ষণ
জীমূতেন্দ্রর বুকে প্রতিঘাত!

তোমার হৃদয়ে আমি তরঙ্গলহরী লয়ে
বালিয়াড়িতে খুঁজি ঠাঁই,
তোমার হৃদয়ে আমি কুমুদ্বান গহীনে
ডুবসাঁতারে নিজে হারাই।

তোমার হৃদয়ে আমি প্রস্রবণের বানে
ভাসি অম্বুনিধির বুকে,
তোমার হৃদয়ে অংশুহস্তে তাপে দগ্ধ
আমি মরি মরণ সুখে!

গঞ্জনা

আমি যবনিকা আমি ধ্বংস
আমি স্থাবির্য নষ্ট,
আমি প্রোৎসাদন সেই আমি
অচিরত্বে পথভ্রষ্ট!

আমি মায়ামৃগ আমি বৈরস্য
আমি অব্যবস্থিচিত্ততা!
আমি বৈরক্ত অমিতাচারের-
অভিসন্তাপে ক্ষীণজীবিতা।

আমি আলোহিতনয়ন অমর্ষ
কাটখোট্টা দাশুরি,
আমি নিরপত্রপ আত্মসর্বস্বতা
আমি ব্যত্যয়কারী!

আমি প্রতিসারী হয়ে পদব্রজ
পাকদণ্ডীর রানী!
আমি অভিপ্রায়শূন্য সংহরণ
অসংঘটনীয় গ্লানি!

চৈত্রের রোদ

গ্রীষ্মের দাবদাহে পুড়ছে
রাখাল ছেলের গা,
আরও পুড়ে কালো হচ্ছে
কালো কাকের ছা।

রোদে পুড়েও মা পাখিটা
ডিমে দিচ্ছে তা,
চৈত্র রোদ পুড়িয়ে দিচ্ছে
ঘটকের ছাতা!

আরো পুড়ে ছাই হচ্ছে-
সবুজ লতা,
পুড়ে পুড়ে খাক হয়েছে
মনের কথা।

পুড়ছে গাছে আমের মুকুল
পুড়ছে একা একা,
পুড়ছে খরায় নদীর দুকূল-
না পেয়ে তার দ্যাখা।

হৃদয় গহীনে পুড়ে ছাই যে
কিছু নিরবতা,
কালো চশমা খুলে দ্যাখো-
পুড়ছে মানবতা।

পুড়ছে মন অন্তঃপুরে পুড়ে
যাচ্ছে ব্যাকুলতা,
এক্কেবারেই পুড়ছে না ভাই
অশুভ দানবতা।

নিস্তব্ধ নগরী

বিষাদের তিক্ততায়
খাদ্যও বিস্বাদ,
খাদ্য ছুঁয়ে দেখতে
জাগেনা সাধ।

বেহালার ঠোঁটেও
নেই চুম,
কবিতার চোখেও
নেই ঘুম।

অনুভূতির শরীর
আজ গুম,
অনুভবের পাড়ায়
নেই ধুম।

আমার প্রেম

আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
ছুলে দেয়া চিনা বাদামে,
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
দেয়া চিঠির নীল খামে।
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
লেখা কবিতাদের ভীড়ে,
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
অচেনা আবেগের তীরে।
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
বুকের ভেতর উষ্ণ আদরে,
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
অনুভূতি ভরা বুক পাঁজরে।
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
কনিষ্ঠা অঙ্গুলির আলিঙ্গনে,
আমার প্রেম আটকে আছে তোমার
হৃদয় প্রকোষ্ঠের ঐ অঙ্গনে।

Share Button