একগুচ্ছ  ভালোবাসার কবিতা ।। গীতা রায়

0
Kobita

কবি গীতা রায়ের সেরা ভালোবাসার পঞ্চ কবিতা। জীবনযুদ্ধে ভালোবাসায় প্রাপ্তি, মান-অভিমান, বিচ্ছেদ ও  বিরহ-ব্যাথার অনবদ্য প্রকাশ।

আত্মমন্থন

আগ্নেয়গিরির মত –
একবুক জ্বালা নিয়ে নিঃশেষ হবো,
তবু্ও তোমাকে ভালবাসবোই।
সাইবেরিয়ার মত তুষারপাতে
এ অবনি জমাট বাঁধলেও
ভালোবাসা আকাশে বাতাসে
প্রতিধ্বনিত হবেই।
মরু সাহারার কঠিন রোষানলে –
সুন্দর ধরণি ছিন্নভিন্ন,
দীর্ণ, কীর্ণ হলেও
তোমাকে ভালবাসবোই।
সোমালিয়ার মতো হাহাকারে
সারা ব্রহ্মাণ্ড ছেয়ে গেলেও
ভালোবাসি, ভালোবাসি –
তোমাকে বলবোই।
রুশের বোমা বর্ষণে
চেচনিয়া ধ্বংসের মতো
সারা পৃথিবী ধ্বংস হলেও
তোমাকে ভালবাসবোই।
জাপানের মতো ভূমিকম্পে
এ বিশ্ব উল্টে গেলেও –
তোমার ভালোবাসা ভুলবো না,
ভুলবো না, ভুলতে পারিনা

অভিমান

চাঁদ যখন খুব কাছে ছিল
তখন আমি ব্যস্ত ছিলাম।
চাঁদ যখন দুরে যেতে লাগলো
তখন তাকে আমি ধরতে চাইলাম।
কারণ চাঁদের সাথে মেঘের মাখামাখি
দেখে বড় হিংসে হয়
মনে হয় এবার চাঁদকে কাছে পেলে
তার একটা পা আমি কাটবই।
কিন্তু মাসের শেষে যখন
আমাবস্যা, পুর্নিমা আসে
চাঁদ তখন একাই ফিরে যায়।।

তোমার মাঝে আমি

শরতের শিশিরে ভেজা সুর্য্যস্নাত প্রকৃতি তুমি,
অনাবিল আনন্দের ডালি তুমি,
তুমি আমার ভোরের কুয়াশা মাখা
গোলাপ গাছের ছোট্ট গোলাপ কলি।
তুমি আমার খোপায় সাজানো নানা রঙের ফুলকলি।
তোমার কন্ঠে লেগে আছে
আমার শত সহস্র রাতের ঘুম পাড়ানী গান।
তোমার চোখের চাহনিতে
আমি বরফের মতো সিক্ত হই।
তোমার কথার সুরে আমি হারিয়ে যাই –
বাংলার কোন অচিন গাঁয়।
তবু্ও অনেক চাওয়া আর না পাও মাঝে
আমি – মাঝে মাঝেই কোথায় যেন
হারিয়ে যাই ।।

তবু্ও ভালবাসি

আজকাল দুয়ার খুলে দিনের আলো দেখতে ইচ্ছে হয়না।
শেষ বিকেলের নিস্তেজ সূর্যের মিষ্টি আলো গায়ে মেখে
বাড়ান্দায় দাঁড়াতে মন চায়না।
মন চায়না জ্যোৎস্না রাতে স্বপ্নীল জগতে হারিয়ে
গুনগুনিয়ে গান গাইতে।
এখন মধ্য রাতে বৃষ্টি হলে
আমার ভীষণ কাঁদতে ইচ্ছে করে।
আর তোমাকে মনে পড়ে
আমি একদিন তোমায় বলেছিলাম –
তোমাকে নিয়ে বৃষ্টিতে ভিজব।
আমার কথা শুনে তুমি হেসেছিলে।
ফাগুনের উষ্ণ হাওয়া আমাকে ছুঁয়ে গেলে
পুরোনো স্মৃতি গুলো মনে পড়ে না কেন?
কেন সবকিছু থাকা সত্বেও নিজেকে
আজ নিঃস্ব মনে হয়?
কার চেতনা, কার বেদনা, কার অনন্ত স্মৃতি
আমাকে অনুভূতিহীন করেছে?
তুমি কি কখনো আমার চোখে অভিমানের
ছলছল করে উঠা জল দেখেছ?
কখনো টের পেয়েছ, আমার অপলক দৃষ্টিতে
তোমার দিকে তাকিয়ে থাকা?
কখনো অনুভব করেছ আমার কপালের
ছোট্ট লাল টিপটা কার জন্য?
মনে হয় না।
যদি তুমি বুঝতে তাহলে আমার সাজানো জগৎটাকে
এভাবে এলোমেলো করে দিতে পারতে না,
পারতে না সবকিছু ভুলে দূরে থাকতে।
কিন্তু আমি পারিনি তোমায় ভুলে যেতে।
তাই আজও তোমায় ভালবাসি ।।

ক্ষণিকের ভালবাসা

প্রতিদিন গোধূলি নামে
প্রকৃতির নিজস্ব নিয়মে
তবু তোমার সাথে হয় না দেখা কোন সন্ধিক্ষণে।
গোধূলি এত সুন্দর কেন?
দিনের শেষ ভাগ গোধূলি
তাইতো এত সুন্দর হয় ।
দিনকে বিদায় দেবার বেলায়
চমৎকার হয় প্রকৃতি।
আসলে এসব আমার মনেরই ভাবনা।
আমার সমস্ত অস্তিত্ব আজ বিপন্ন,
সাবলীল জীবনধারায়
গভীর বিশ্বাসের অপমৃত্যু,
সুন্দর জীবনের স্বপ্নীল চেতনাগুলো
আজ পরাজিত ।
তবু্ও –
আমি জানি তোমার সাথে
আবার দেখা হবে।
দেখা হবে সেখানে
জীবনের চরম সুখে কিংবা দুঃখে ,
নিবিড়ভাবে হাতটা টেনে
সাহস যোগিয়েছিলে যেখানে।
কাম্য নয় কোন সত্যের কারণে
তোমাকে ফিরে আসতেই হবে।
প্রতীক্ষায় রবো পরের জন্মে দেখা হবে –
দেখা হবে দার্জিলিংয়ে।

⇒আরও কবিতা পড়তে এখানে কিল্ক করুন

⇐বিজয় দিবসের কবিতা

Hits: 0

আপনার মতামত দিন