মিসির হাছনাইন -এর দুটি কবিতা

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৭ ২:২৬ অপরাহ্ণ
Share Button
  • তারপর…অন্য কোন দেশে

 

মাঝে মাঝে নিজকে খুন করতে ইচ্ছে করে
পাগলের চোখ নিয়ে দেখতে থাকি ফুল আর ফুল…
নিজের চেহারা ভুলে যাই হঠাৎ করে তোমার।
জীবনের কত গল্প মনে পড়ে-হাসতে থাকি
আমার যে পাখির জীবন ভীষণ ভালো লাগে!
নষ্ট হওয়া জীবন পুড়তে দিয়েছি;কালো ধোঁয়াই
খুব সহজে একটা মানুষ উড়ে যাচ্ছে অন্য কোন দেশে।

শরতের রাস্তায় কুকুরের সঙ্গম দেখি খালি গায়ে
বোধ হয় আকাশের সাদা মেঘগুলো সঙ্গম করে
কামুক মনে জেগে উঠে একুশ বছরের বয়সী দুপুর।
আর কতটা শুদ্ধ ছিলো আমাদের মেলামেশা?
প্রিয়তমা,নীল শাড়িতে আমি কতবার ভুল করে
তোমাকে শরতের আকাশী কাশফুল ভাবতাম,
তুমি লুকিয়ে-মেঘের আড়ালে গান গাও;আমি
আটকে যাই তোমার নাকের ছোট্ট নথে।
নষ্ট হওয়া জীবন পুড়তে দিয়েছি..পুড়ছি আমি আর খুব ধীরে ধীরে…
তারপর….একটা মানুষ উড়ে যাচ্ছে অন্য কোন দেশে।

 

 

  • গাছবৃষ্টি

এই যে আকাশের নীল রঙ দেখলে
এসব শরতে আমার যেন কি হয়!
খুব তাড়াতাড়ি ভুলে যাই সবকিছু।
মনে হয় গাছের মতো দাঁড়িয়ে আছি,
আর নদীর ভেতরে বেড়ে ওঠে আমার ছায়া;
নিজকে মনে হয় কত বছরের পুরনো।
তোমাকে আকাশের পথে হাঁটতে দেখি
মনে মনে ভাবতে থাকি…আহা!
যদি পাখি হতাম তোমার আকাশের নীল
রঙে উড়তে উড়তে…তোমাকে ছুঁয়ে দিতাম।
তারপর-খুব গোপনে আমরা ঢুকে যেতাম
মেঘের ভেতরে-তোমার ।

Share Button