তি ন টি ক বি তা।। রোশনী ইয়াসমীন

শুক্রবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৭ ৯:১৫ অপরাহ্ণ
Share Button

ভালোবাসার পলিতে আত্মবিশ্বাস জন্মাক

রক্তের শরীরে বিভীষিকা-
নিরন্তর মহামারি গিলে খাওয়ায় ব্যস্ত
মাতৃস্থানীয় সৌজন্য।
সততার বাণী এখন দাঁতের ফাঁকে আটকে
আটপৌরে-জীবনে পা দিয়ে,ভয়ে –
আঁটোসাঁটো সেই গিন্নী।

মাঝ দুয়ারে অখণ্ড বাতিটা লটকে-
ত্রেতা যুগের কিছু কাল সৈনিক।
নিভাবার শখে নিতান্ত রেষারেষি,
দৃঢ়- দুর্জয় ডুব দিয়েছে
জড়তার কুঁয়োর মাঝে।

 

জীবদ্দশায় কাপড়গুলো পাট করতে শিখেছি

মেদহীন মেঘমালা
আইনি মৃত্যুর দাগ মুছে দেবার কথা বলেই লাপাত্তা!
দায়গুলো সেরে তাড়াতাড়ি ফিরে যাবে বাড়ি সেই আশা মনে
সন্ধ্যা যদি মাথায় উঠে বসে?
একটি কথাও শুনবে না মা হয়তো!
ফিরতি জনসমুদ্রের রাস্তা বলে উঠলো-
তুই শুধু ভেবেই মর, হতচ্ছাড়ি
যেদিন আবার জন্মাবি
সেদিনও আমায় এখানেই পাবি
জানি তখন তোর পথ চলার
কায়দা-কানুন ভিন্ন রকম হবে।
এখন ভাবনাটা ছেড়ে দিয়েছি
সবটাই জানা কথা,
যা এবার বাড়ি যা-
তা না হলে এ জীবন কিছুটা হলেও নষ্ট হবে,
বুঝতে পারছি- এবার আস্তে আস্তে
পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ জীব হতে চলেছি
দিনের শেষে জাত- ধর্ম গুণে
নির্বিকার মুড়ি চিবাই।
মেয়েটা মিষ্টি হাসি দেখিয়ে বুঝিয়ে দিলো
আশাহীন কাপড়গুলো সে পাট করতে শিখে গেছে,
অথচ তুমিও জানো, জানি আমিও
জীবদ্দশায় আমাদের হাত পা বাঁধা।

যুগ অবতারে শ্রেষ্ঠার-
হাঁপিয়ে উঠেছে তরবারি।
মুখে এবার তুই তুকারি করে
যুগের শেষ সন্ধ্যা দিলো নামিয়ে।
চলো না এবার- নতুন জন্ম আনি…
জলে ঢোক গিলুক ধরা-
শাপান্বীত আচরণ কুরে কুরে
মাটির আভিজাত্য খেয়ে
এতটুকুও বাকি রাখতে চাই না।
যদি পারো হাতের দু মুঠোয়
ভালোবাসার পলিতে বীজ বপন করে
সন্ধ্যা বাতিটা জ্বালিয়ো-
তবেই, ওই -গাঢ় কালো রাত
পার করার আত্মবিশ্বাস জন্মাবে।

 

নদীর কূল জুড়ে বৃষ্টি বর্ষণ

এলোকেশি-
পাতার গায়ে ঠাঁই পায়নি
এখন সুযোগ বুঝে-
বুকের পাটা ভেঙে
কলমে সাজিয়ে রেখেছে ,কালির পরিণতি।

ভাঙা ঘরের পুরুত্ব, ভয়ানক ঢিঁট হয়েছে-
এক পলকে ,সন্ধ্যা বাতিটি নিভিয়ে
কালসিটে ফেলেছে বুকে।
সেই কষ্টে-
সুখতারা, দৃষ্টি হারিয়ে এখন ঘরবন্দী।

মাকড়সার জালে কপট কপোল
টিভি ঘরের পেছনে-
মুখ লুকিয়ে খবরের কাগজে।
ঝুল মেখে বসে আছে, ধৈর্য্য
কাল যদি রক্তের তেজ বাড়ে
ধুয়ে মুছে আবার সাজিয়ে নেবে, সন্ধ্যে বাতি।

ভেবেছিলো, মুখটা এবার বন্ধ হবে-
কালনাগিনের ছোবল পার পাবেনা,
রক্ত মাংসের শরীরে।
তবুও ,জানা আছে –
চামড়ার গভীরতা নষ্ট হলেও
বিশ্বাসের তেজ ঠিক পথ দেখিয়ে
চরিত্র সাজিয়ে নেবে
কালো মেঘের আড়ালে
এক টুকরো সূর্যের হাসির মত।

Share Button