বিজয় দিবসের কবিতাবলী

সোমবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯ ৯:৩৪ অপরাহ্ণ
Share Button

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আমাদের বিশেষ আয়োজন বিজয় দিবসের কবিতাবলী

আমি বিজয় দেখিনি ।। শাওন মাহমুদ

আমি বিজয় দেখিনি শুধু দেখেছি বিজেতার উল্লাস,
যে উল্লাসে মিশে আছে একাত্তরের হাহাকার,
বীর শহীদের লাশ!
যে উল্লাসে মিশে আছে অজস্র বোনের বিনম্র চিৎকার,
মায়েদের দীর্ঘশ্বাস।
আমি বিজয় দেখিনি….



হত্যা।। সজীব আহমেদ

রক্তধারার স্রোত বয়ে চলছে সমূদ্রের দিকে
মাথা ফেটে- গলা কেটে- বোমা মেরে-
কিংবা কতশত স্টিমার, জাহাজ ডুবি-
বিমান নিখোঁজ হয়েছে সমুদ্রের নোনা জলের গভীরে।

বেশ কিছু শিশুদেরও হত্যা করা হয়েছে
মধ্যযুগীয় কায়দায়।

হায়!
অসংখ্য নারীর বিক্রিমুখি ক্ষত-বিক্ষত লাশ।

তাদের বহমান রক্তে ভরে গেছে সমুদ্র,
লেগে আছে হাঙরের জীভে।

পৃথিবীতে ধর্ম গুলো রোজ রক্ত খায়।
বাল্য বিবাহে যেমন কোরে-
কিশোরীর যোনী ফেটে রক্ত ঝরায়।

‘তবুও মরছে মানুষ-
পৃথিবীর নরম ঘাসের ওপর।’



 

ময়নাতদন্ত।। সঞ্জয় পূণীক

অনাবৃষ্টিকাল বেছে নিয়ে পৌষ-মাঘের মাঝামাঝি
একদিন সোয়া তিন মাইল জলপথ অতিক্রম করে
এক নির্জন দ্বীপের স্বচ্ছ বালুচরে তর্জনী দিয়ে
গভীর দাগ কেটে লিখতে গিয়েছিলাম
গণধর্ষণে নিভে যাওয়া এক স্কুলছাত্রীর লাশের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট।

পকেটবাজ বৃষ্টি এসে খেয়ে দিলো কপাল লিখন…

কৃত্তিম বৃষ্টির জলে সত্য মুছে দিয়ে সাদাকালো রিপোর্ট এলো-
মেয়েটি হস্তমৈথুন করতে গিয়ে উত্তেজনায় স্ট্রোক করেছিলো!

স্কুলের ঘন্টা বাজে,
ধর্ষকেরা সগৌরবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে।
আমি জাতীয় পতাকার ময়নাতদন্ত করি…
বাপহারা মৃত মেয়েটির মায়ের চোখে নৈরাশ্যের জল;
সে জলের ময়নাতদন্ত করার দুঃসাহস আমার হয় না..।



মুক্তি।। মমতা রানী মন

আজ বাতাসে আমার স্বপ্ন ভাসে
স্বপ্নের বার্তাগুলো মেঘ হয়ে কাঁদে
অঝরে অঝরে

জানবে তুমি আমার এ দেশ শেখ মুজিবের
স্বাধীনতা তুমি শামসুরের

যদি না রক্ত বইতো রাজপথে
আজ হতাম পাকিস্তান,
যদি না কাদাতো জননীকে
আজ হয়তো পেতাম না মুক্তি
হয়ে যেতাম পাকিস্তানি,

যদি না কলম ছুড়ত
উর্দুই হতো আমার বুলি
সেতু, কালভার্ট ভেংগেছো বলে
শোককে করেছি শক্তি
আমরা আজ স্বাধীন বাঙালি

এ স্বাধীন শেষ স্বাধীন নয় যে!
আর কত, শত শত মা, বোনকে
বীভৎসভাবে হারালে-
ক্ষান্ত হবে এ মানবজাতি?

আর কত মেধা হারালে
বন্ধ হবে আহাজারি?

মুক্তি চাই আমি শুধুই মুক্তি
দিন, মাস বছর ছেড়ে
মায়ের কোল শান্তি করে
যেন একটু  ঘুমোতে পারি।

মায়ের আগে সন্তানের লাশ
এ যে মায়ের অবিশ্বাস!
এ কি শুধুই এক মা, এক বাবা
এক বন্ধু, এক পাড়ার?
না- এ লাশ আমাদের
এ জাতির
মানবতা, নৈতিকতার
ভালোবাসার পরাজয়ের
আমি শুধু মুক্তি চাই শুধুই মুক্তি।

মুক্তি পেয়েছি এক জাতি এক রাষ্ট্র থেকে
কিন্তু তবুও মুক্তি মিলে নি আমার চোখে
মুক্তি মিলেনি এক নরপিশাচ থেকে।



লাইন অব ভিক্টোরি।। কমলাঞ্জন কেষ্টা

সেদিন মোটা কাঁচে দেখেছিলাম তোমাদের আটচল্লিশ বসন্তবিলাসী রঙিন উল্লাস।
দু’ তিনটি দেশ, নদী ও নারী কিংবা নেতিয়ে পরা পতাকায় হাজারো সম্ভ্রম গালিচার নগ্ন দাগ।
কানাগলির নসুবালার বীভৎস আর্তনাদ, দাঁত কামড়ানো খটমটে সুদীর্ঘ ইতিহাস!

ভাগ্য বিজয় এনেছে ঠিকই উল্লাসকে টুটিচিপে হত্যা করছে! নেতিয়ে পরা পতাকা তোমাদের বিজয়-উৎসব।



রক্তচোষা মাটি- ৪৮ ।। হোসনেয়ারা লিলি

লক্ষ শহীদদের রক্ত চুষে
নিয়েছিল যে মাটি,
রক্তনদীতে গোসল করেও
এমাটি হলনা খাঁটি।

যে নারী ভেঙ্গেছে হাতের চুরি
জ্বালিয়ে আশার বাতি,
স্বপ্ন মুছেছে নয়ন জলে
বিজয়ী হবেই জাতি।

যেই মা বুকে পাথর বেঁধে
যুদ্ধে পাঠালো ছেলে,
লাল-সবুজের পতাকা জড়িয়ে
আসবেই ফিরে কোলে।

দেশ তো এখন হয়েছে স্বাধীন
সকল ঝাঞ্ঝা কাটি,
সত্যিকারের হয়নি স্বাধীন
রক্তচোষা মাটি।

মায়ের চোখের কালো অঞ্জনি
লাল পতাকার বৃত্ত
চিরসবুজ মায়ের আঁচল
চারিপাশ আবৃত্ত।



ফুল।। প্রীতিলতা রায় (পলি)

ফুল হাসে কথা কয় প্রকৃতির সাথে।
ভোমরা আসে গুন গুন করে গান শোনায় ফুলকে।
ফাগুনের শিশিরে ডুব দেয় সাতার দেয় ফুল।
অনন্ত প্রেমের আবর্তে জড়িয়ে থাকে এই ফুল।
একটি ফুলের মিষ্টি হাসি পাষান হৃদয়েও প্রেমের মধুময় আলো জ্বালাতে পারে।
ফুলের কদর সৃষ্টির আদিকাল থেকেই।
তাই মানুষ ভালোবাসে ফুলকে।
আমি কি তোমায় ভালোবাসতে পারিনা।
যেমন মানুষ ভালবাসে ফুলকে।



বিজয় ভাবনা।। মেঘবতী মধুবন্তী

বিজয় দিবস যেমন আনন্দের একই সাথে উপলব্ধির।
১৯৭১ সালে নয় মাস যুদ্ধের পরেই আসে আমাদের কাঙ্খিত বিজয়।
নয় মাসের ত্যাগ, সংগ্রাম, অসংখ্য প্রাণের বিনিময়ে পেয়েছি এই বিজয়।
১৬ডিসেম্বর ১৯৭১ সালে বিজয়ের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতি পেয়েছে নিজের দেশ, পরিচয়, স্বকীয়তা,

সেই সাথে পেয়েছে হার না মানা জাতির সম্মান।
বিজয় দিবস আমাদের শিক্ষা দেয় অধিকার আদায়ের, অন্যায়ের প্রতিবাদ করার, মাথা উচু করে বাঁচার।
স্বাধীন বাংলাদেশ এ বিজয়ে সূর্য আটচল্লিশটি বসন্ত পার করেছে।
বিজয় মানে মুক্তি,সকল অন্যায়, অমঙ্গল, কুপ্রথা, শৈরাচার থেকে।
বিজয় দিবস পালনের সাথে সাথে বিজয় কি, কেনো দরকার, কিভাবে আসলো এসব জানা আবশ্যক।

 

বিজয় দিবসের আরও পড়ুন  বিজয়ের কবিতা

 

বিশেষ সংখ্যা বিজয়ের হৃদ-স্পন্দন

Share Button

Hits: 310