সিরিজ কবিতা।। আত্মজীবনী।। পর্ব-০১

রবিবার, জানুয়ারি ৫, ২০২০ ১:০২ পূর্বাহ্ণ
Share Button

কবি সজিব আহমেদের জীবনমুখী সিরিজ কবিতা আত্মজীবনী। আমরা এটি ধারাবাহিকভাবে পর্ব আকারে প্রকাশ করছি।

এক.

চোখের আঙ্গিনায় সূর্যমুখী ফুল উড়ে আসে ঝাঁকবাঁধা হলুদ।



দুই.

কুয়াশায় স্যাঁতসেঁতে জ্যোৎস্নায় কে ভাবে? ফণা তোলে নাচে মুদ্রার মতো।



তিন.

ঘর ভেঙে বাইরে কেবলই আপন সরলে বিশ্বাস কাঁদে!



চার.

ক্ষমতাসীন ফুল চাষ করতে না পেরে অস্ত্রের সাঁনে ; রাষ্ট্রের জনগণকে পিছমোরা করে রাখে। প্রতিটি হত্যায় দাগ লাগে, সীনা বরাবর মানচিত্রে।



পাঁচ.

হায় মেঘ! নিঃশব্দে উড়তে চাইলাম আমাকে ডানা পড়িয়ে দেয়া হলো।



ছয়.

চুরি করা শিখে গেলে কখনো অভাব কাটে না।



সাত.

আঘাতের বালিতে চীনা অক্ষরে তোমার নাম লিখে রাখি। ইচ্ছে নামক বিন্দুগুলি; ক্ষত হয়ে তোমায় চিনে রাখুক।



আট.

সত্য সুন্দর! জলের মত স্বচ্ছ প্রতিটা জীবাণু।



নয়.

পৃথিবী ও পুরুষ! সংঘাত আর যুদ্ধ ছাড়া কারো অস্তিত্ব টিকে থাকে না।



দশ.

অতটুকু দিতে পারি গহীনে যা আছে! বলেছিলে মানুষের স্বপ্ন যুদ্ধের কালমাগা।



এগারো.

ঘাসফুল হতে চেয়েছিলাম শিশুতোষ কানের দুল।



বারো.

গোপনে হেঁটে বেরিয়ে আকাশ দেখছিলাম মানুষ তো অর্গাজমের ফসল!



তেরো.

কেবল ই দূরে দূরে যায় নুর আযানের শব্দে কাছে আসে মুখপোড়া বকুল।



চৌদ্দ.

শুভাশিস , আঙুলের ব্যথা চোখ দিয়ে ঝরে ব্যথা পেলেও সরে আসেনা মনমাতা!



পনেরো.

এইশহর আর নুপুরের দোকান কেউ কাউকে কোনদিন ছেড়ে যাবে না নম্রতার ভিড়ে জেগে থাকবে নুপুরের শব্দ, পায়ের কিলবিলে।

 

Share Button

Hits: 60